যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে শেষ পর্যন্ত পালের গোদা রাজাকারের শিরোমনি ৭১’এর খুন, ধর্ষন, হত্যার নেতৃত্বদানকারী, ধর্ম ব্যবসায়ী গোলাম আযম গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারের যাবার অপেক্ষার প্রহর গুনছে, সেই অবস্থায় রাজাকারদের দোসর জামাতের ছাত্রসংগঠন দেশে অরাজকতা সৃষ্টির লক্ষে বিভিন্ন কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে একের পর এক অপকর্ম করে বিচার প্রক্রিয়াকে ভিন্ন খাদে প্রবাহিত করার চেষ্টার অংশ হিসাবে যুদ্ধাপরাধ আর মানবতাবিরোধী দুটিকে দুই ভাবে ব্যাখ্যা করে বিভিন্ন ব্লগে বিভ্রান্ত ছড়ানোর চেষ্টা করছে। তাই লেখার প্রথমেই জানা দরকার যুদ্ধাপরাধআর মানবতাবিরোধী অপরাধ কি ?

ভালবাসা কি জানেন ??
আচ্ছা আজকে আপনাদের একটা গল্প বলি অনেক আগের ঘটনা তাও আরেকবার বলি,
এক লোক রাতের বেলা বাড়ি ফিরেছে , সে প্রচুর পরিমানে মদ পান করে মাতাল অবস্থায় বাড়িতে ঢুকেই ভাংচুর শুরু করেছে, সবকিছু নষ্ট করেছে , তারপর বমি করে ফ্লোর নষ্ট করেছে, তার স্ত্রী তাকে পরিষ্কার করে বিছানায় শুয়ে দিয়েছিল , তার পর সব কিছু গুছ-গাছ করে তারা ঘুমাতে গেল 

 

Black Cat

 

একখানি কৃষ্ণমার্জারকে লইয়া যাহা কিছু হট্টগোল বিগত কিয়ৎদিন যাবৎ মিডিয়াস্ফিয়ারে হইতেছে, তদ্দৃষ্টে মার্জারকুল যৎপরোনাস্তি শ্লাঘা বোধ করিবেক- ইহা নিশ্চয় করিয়া কওয়া যায়। এক্ষণ আন্তর্জাল কেবলি মার্জারচিত্রে সয়লাপ্। কিন্তুক কী ঘটিয়াছে আসলে?

ওয়াজীহ্ রাজীব। পুরো নাম ওয়াজীহ্ আল্ হাসান রাজীব। জন্ম ২২ জানুয়ারী ১৯৭৬, টাঙ্গাইল শহরের কলেজ পাড়ায়। পিতার সরকারী চাকুরীর সুবাদে ৭ম শ্রেণী পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন জেলার দশটি স্কুলে পড়া লেখার পর ঝিনাইদহ ক্যাডেট